আনন্দ আয়না

‘ছোট্ট প্রোডাকশন’ এর যাত্রা শুরু, সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়

নামটা শুনেই চমকে উঠতে হয়! বড়ত্বের বড়াইয়ের এ সময়ে প্রোডাকশন হাউজটির নাম ‘ছোট্ট প্রোডাকশন’৷
‘স্টোরি ছিক্সটি ফাইভ’ নামে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র মুক্তির মধ্য দিয়ে ১৫ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করলো তারা৷ জানা গেল, ‘ছোট্ট গল্পের ছোট্ট সিনেমা’ প্রজেক্ট নিয়ে প্রোডাকশন হাউজটি প্রাথমিকভাবে কাজ করবে৷ এ প্রজেক্টের আওতায় তৈরি হবে সর্বমোট একশোটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, যার সবগুলো গল্পই নেয়া হবে ছোট্ট প্রডাকশন এর কর্ণধার লেখক ওয়াহেদ সবুজ এর গল্প-সিরিজ ‘ছোট্ট গল্প’ থেকে৷ ছোট্ট গল্পগুলো মূলত একটি বা দুটি বাক্যে লেখা সাংকেতিক গল্প, যার পেছনে একটি কাহিনি-প্রেক্ষাপট থাকে৷ সে কাহিনি-প্রেক্ষাপটটি বুঝে নেয়াটাই পাঠকের দায়৷ ছোট্ট প্রোডাকশন মূলত সে গল্পগুলোর পেছনের কাহিনি-প্রেক্ষাপট নিয়েই শর্টফিল্মগুলো তৈরি করছে৷ যার চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক লেখক স্বয়ং৷

প্রথম চলচ্চিত্রটির নাম ‘স্টোরি সিক্সটি ফাইভ’ কেন? এ প্রশ্নের উত্তরে ওয়াহেদ সবুজ বলেন, “এটি আসলে ফিল্মের নাম নয়, এটি ‘ছোট্ট গল্প’ সিরিজের গল্প নম্বর৷ যখন যে গল্পটির চলচ্চিত্রায়ন করা হবে, সে গল্পের নম্বর দিয়েই নামকরণ করা হবে৷ তবে ইউটিউবে ফিল্মগুলোর ডেস্ক্রিপশানে মূল গল্পটি পাওয়া যাবে৷”
এদিকে, প্রথম শর্টফিল্মটি প্রকাশের সাথে সাথেই ফেইসবুকে ব্যাপক সাড়া লক্ষ করা গেছে৷ বেশিরভাগ দর্শকই ফিল্মটির ভূয়সী প্রশংসা করেছেন৷ তবে, ছোট্ট প্রোডাকশন এর কাজের প্রতি এত আগ্রহের পেছনে আরো একটি বিশেষ কারণ রয়েছে; সেটা হলো, এর সকল আর্টিস্ট ও কলাকুশলীই নতুন৷ এর পেছনে কারণ কী? জিজ্ঞেস করতেই উত্তর পাওয়া গেল— “আমরা এ মিডিয়ায় কাজ করতে আগ্রহী নতুনদের জন্য একটি প্লাটফর্ম তৈরি করতে চাই৷ যাদের কাজের আগ্রহ রয়েছে, কিন্তু শেখার সুযোগ বা কাজে প্লাটফর্মের অভাবে আসতে পারছে না, তাদের জন্য এটি একটি কমিউনিটি, একটি প্লাটফর্ম৷” বললেন ছোট্ট প্রোডাকশন এর সিনেমাটোগ্রাফার নীল আবির৷

‘স্টোরি সিক্সটি ফাইভ’ এ যারা কাজ করেছেন:
চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক: ওয়াহেদ সবুজ
সিনেমাটোগ্রাফার: নীল আবির
কণ্ঠ: জয়ন তানভীর
এডিটিং: সোহানুজ্জামান মোহন
শব্দগ্রহণ: আশিক রাজীব
অভিনয়: সাদিক মাহমুদ স্বপ্ন ও নুসরাত জাহান

শর্টফিল্মটি দেখতে ……….