সাহিত্য

মধ্যরাতের কাব্য: ৫০

ওয়াহেদ সবুজ

এই যে এই বিছানা-বালিশ, আয়না-চিরুনি, মাঠ-সমতল;
কাঠপুতুলের হৃদয় জুড়ে নিঃস্পন্দ হাহাকার,
নকল সোনায় লাগা ঘোর ভেঙে দেখি
শূন্য চারদিক!
আকাশে ভেসে বেড়ায় মাছারাঙার দল,
সেখানে কোনো জল নেই, যদিও
সাগরের ভেতরে থাকে আকাশ৷
বিভ্রান্ত মাছরাঙা জলে ফিরে দেখে
আকাশের নীল এক বিভ্রম—
সাগরজল বর্ণহীন যে, যেমনটি আকাশ৷

এই যে এই হাঁটা-পথ, বৃক্ষ-ছায়া, ছাদ-নির্মল;
বইয়ের ভাজে শুকনো ফুলের অস্ফুট আর্তনাদ,
শিমুলের লালফুল-বিভ্রান্তি কেটে দেখি
শূন্য চারদিক!
পার্কের বেঞ্চিতে পড়ে থাকে বাদাম-কঙ্কাল,
সেখানে প্রেম নেই কোনো, যদিও
আঙুলের ছোঁয়ায় থাকে স্ফটিক ভালোবাসা৷
বিভ্রান্ত বাদাম-খোসা ফিরে যায় ঘাসে,
দেখে, আঙুলের ছোঁয়া— সে এক বিভ্রম—
শূন্য পড়ে থাকে ঘাস, যেমনটি পার্কবেঞ্চ৷

এই যে এই সময়, হৃদয়, জীবন;
মহাশূন্যের বুকে মধ্যরাত চিৎকার,
সম্বিত ফিরে পেয়ে চতুর্পাশের ষড়ভূজসমূহে
চেয়ে দেখি
তুমিবিহীন কি এক বিষম শূন্যতা;
প্রভাতের লাল আলো গোধূলিতে মিশে গিয়ে দেখে
রঙধনুগুলি বড্ড কালো!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *